গরুর দুধ পানে হজমে সমস্যার পাঁচ সমাধান

গরুর দুধ
গরুর দুধ পানে হজমে সমস্যার পাঁচ সমাধান

অনেকেই গরুর দুধ পান করলে পেটের গণ্ডগোল কিংবা অ্যালার্জিতে আক্রান্ত হয়। সে ক্ষেত্রে তাদের জন্য কয়েকটি স্বাস্থ্যকর বিকল্প রয়েছে। এ লেখায় থাকছে তেমন কয়েক ধরনের বিকল্প, যা অনেকটা দুধের মতোই পান করা বা রান্নায় ব্যবহার করা যায়।
১. সয়া দুধ
গরুর দুধের সবচেয়ে জনপ্রিয় বিকল্প হলো সয়া দুধ। সয়াবিনের নির্যাস থেকে এ দুধ তৈরি হয়। এটি চিনি মিশিয়ে মিষ্টি করে কিংবা চিনি ছাড়াও খাওয়া যায়। এ ছাড়া বাজারে এটি চকলেট ও ভ্যানিলা স্বাদেও পাওয়া যায়।
২. রাইস দুধ
চালে খুব কম মানুষেরই অ্যালার্জি বা অনুরূপ সমস্যা হয়। আর এ কারণে সেদ্ধ চালের গুঁড়া থেকে তৈরি এ দুধ অনেকেই পছন্দ করে। গরুর দুধের সঙ্গে তুলনায় এ দুধে রয়েছে উচ্চমাত্রার কার্বহাইড্রেট ও নিম্নমাত্রায় প্রোটিন।
৩. নারিকেল দুধ
গরুর দুধ এর সঙ্গে তুলনায় নারিকেল দুধ ঘনত্ব ও রঙের দিক দিয়ে মিল রয়েছে। এতে রয়েছে উচ্চমাত্রার ফ্যাট। অনেকটা বাদামের মতো স্বাদ থাকায় এটি বেকিংয়ে ব্যবহার করা যায়।
৪. অ্যামন্ড দুধ
অ্যামন্ড বা কাঠ বাদামের নির্যাস থেকে এ দুধ তৈরি হয়। এতে গরুর দুধের তুলনায় কম কম প্রোটিন থাকলেও স্বাদ ও গন্ধ আকর্ষণীয়। এটি রান্নাতেও ব্যবহার করা যায়।
৫. হেম্প দুধ
যারা দুধে অ্যালার্জিতে আক্রান্ত তাঁরা পান করতে পারেন হেম্প দুধ। এটি হেম্প বীজ, মিষ্টি ও পানি মিশ্রণ করে তৈরি হয়। সাধারণ দুধের চেয়ে বেশি সময় এটি সংরক্ষণ করা যায়।
আপনার যে কোন স্বাস্থ্য বিষয়ক তথ্যের জানান দিতে আপনার ডক্টর রয়েছে আপনার পাশে।জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করার জন্য নিয়মিত ভিজিট করুন আপনার ডক্টর health সাইটে।মনে না থাকলে আপনি সাইট আপনার ব্রাউজারে সেভ করে রাখুন।ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *